Skip to main content

Search Google Appliance

Search Google Appliance

শিক্ষা কমিশনারের নিকট আপিল বিষয়ে প্রায়শই জিজ্ঞাসা করা প্রশ্নাবলী (Frequently Asked Questions Concerning Appeals to the Commissioner of Education - Bengali)

১.আমি কিভাবে আপিল করতে পারি?

শিক্ষা আইন §৩১০ এবং  ৮ এন ওয়াই সি আর আর (NYCRR) পার্ট ২৭৫ সেক এ শিক্ষা কমিশনারের রেগুলেশন (নিয়মকানুন ) আপীল আরম্ভ করার বিষয়ে যা কিছু অনুসরণ করতে হয় তা নিয়ন্ত্রণ করে। এছাড়াও আপিল পেশ করার নির্দেশনা এবং ফরম দেখুন। আপনার কোনো প্রশ্নের উত্তর যদি এই ওয়েবসাইটে না পান, তাহলে এই নাম্বারে যোগাযোগ করুন – (৫১৮)৪৭৪-৬৪০০ ।

২. গৃহহীন শিশু ও যুব-যুবা সংশ্লিষ্ট আপিল কি কমিশনারের প্রবিধানের পার্টস ২৭৫ এবং ২৭৬ দ্বারা নিয়ন্ত্রিত হয় ?

কমিশনারের প্রবিধানের পার্টস ২৭৫ এবং ২৭৬ এর কিছু কিছু বিভাগে গৃহহীন শিশু ও যুব-যুবা সংশ্লিষ্ট আপিলের জন্য বিশেষ বিধান ধারণ করে।  এই ওয়েবসাইট বিধানাবলীর একটি সারসংক্ষেপ প্রদান করে এবং এই যে ফরমগুলো মুদ্রিত এবং পূরণ করা যাবে তা প্রদর্শন করে, পাশাপাশি আপিলের প্রক্রিয়াকরণের জন্য গৃহহীন শিশুদের জন্য স্থানীয় শিক্ষা সংস্থার লিয়াজোঁর ভূমিকা সংক্রান্ত তথ্য পাওয়া যাবে (কমিশনারের নিকট গৃহহীন শিশু ও যুব সংশ্লিষ্ট  আপিল)। যেখানে প্রবিধানে গৃহহীন শিশু ও যুব সংশ্লিষ্ট  আপিলের জন্য নির্দিষ্ট বিধানাবলী প্রদান করে না সেখানে আপিলের জন্য শিক্ষা আইন §৩১০ অনুসারে সাধারণ নির্দেশাবলী অনুসরণ করা উচিত।

৩. নিউ ইয়র্ক সিটি চার্টার স্কুল অবস্থান / সহ- অবস্থান এবং বিল্ডিং ব্যবহারের পরিকল্পনার সঙ্গে জড়িত আপিল কি কমিশনারের প্রবিধানের পার্টস ২৭৫ এবং ২৭৬ দ্বারা দ্বারা নিয়ন্ত্রিত?

কমিশনারের প্রবিধানের পার্টস ২৭৫ এবং ২৭৬ এর কিছু কিছু বিভাগে বিশেষ বিধানাবলী ধারণ করে এবং নিউ ইয়র্ক সিটি চার্টার স্কুল অবস্থান / সহ- অবস্থান এবং বিল্ডিং ব্যবহারের পরিকল্পনার সঙ্গে জড়িত। এই ওয়েবসাইট এই বিধানাবলীর একটি সারসংক্ষেপ প্রদান করে, অতিরিক্ত প্রশ্ন ও উত্তর, এবং এসব আপিলে প্রয়োজনীয় নির্দিষ্ট পিটিশন ফর্ম এর নোটিশ সরবরাহ করে। (নিউ ইয়র্ক সিটি চার্টার স্কুল অবস্থান / সহ- অবস্থান এবং বিল্ডিং ব্যবহারের পরিকল্পনার সঙ্গে জড়িত আপিল)। যেখানে,প্রবিধানের নিউ ইয়র্ক সিটি চার্টার স্কুল অবস্থান / সহ- অবস্থান এবং বিল্ডিং ব্যবহারের পরিকল্পনার সঙ্গে জড়িত আপিলের জন্য নির্দিষ্ট বিধানাবলী প্রদান করে না সেখানে আদালতের  শিক্ষা আইন §৩১০ অনুসারে আনা আপিলের জন্য সাধারণ নির্দেশাবলী অনুসরণ করা উচিত।

৪. আমার একটি স্কুল জেলার বিরুদ্ধে একটি অভিযোগ থাকলে আমাকে কি আদালতে একটি মামলা করতে হবে, নাকি আমার প্রথমে কমিশনারের নিকট আপিল করতে হবে?

অধিকাংশ ক্ষেত্রে,নির্দিষ্ট সীমিত ব্যতিক্রম বাদে (উদাহরণস্বরূপ স্কুলের নির্বাচনী বিরোধ, §৩০৬ অপসারণ কার্যক্রম), আপনি বরং কমিশনারের কাছে আপিল না করে বরং আদালতে একটি কার্যধারায় অগ্রসর হতে পারেন।

৫. আমার কি আপিল করতে একজন আইনজীবী নিয়োগ করা প্রয়োজন?

না। তবে, আইনজীবি দ্বারা উপস্থাপনা করার সুবিধা আছে। আপিল প্রক্রিয়া একটি আইনি কার্যধারায় হয় যা আইনি প্রশ্ন উত্থাপন করে যা একজন অ্যাটর্নি ভাল ভাবে সুরাহা করতে পারেন।

৬. আপিল করার জন্যে কি কোনো সময় সীমা আছে ?

হ্যাঁ। আপনার কাগজপত্র পরিবেশন করা আবশ্যক (সঠিক সেবার জন্য উপরে উল্লেখিত নিয়মকানুন দেখুন) ত্রিশ (৩০) দিনের পর কোনো চ্যালেঞ্জ গ্রহন করা হয় না। উদাহরণস্বরূপ, আপনি যদি শিক্ষা বোর্ড দ্বারা আপনার শিশুকে সাসপেন্ড করার একটি সিদ্ধান্ত চ্যালেঞ্জ করতে চান, আপনার শিশুকে সাসপেন্ড করার বোর্ড এর চূড়ান্ত সংকল্প নেয়ার ৩০ দিনের মধ্যে আপনার দরখাস্ত আনতে হবে। সাধারণত ৩০ দিনের পর আপিল করলে কমিশনারের দ্বারা বরখাস্ত করা হয়।

৭. কমিশনার কি কখনও বিলম্ব আপিল এর অনুমতি দেন?

সময়জ্ঞান বিষয়ক নিয়ম খুব কঠোর। বছরের পর বছর ধরে হাজার হাজার সিদ্ধান্ত জারি করা হয়,  কমিশনার খুব কমই বিলম্ব মাফ করেছেন। মূলত, একজন আবেদনকারী আপিল প্রক্রিয়ার প্রাপ্যতা জানতেন না অথবা বুঝতে পারেন নি যে একটি বিলম্ব দরখাস্ত আনা কোন আইনি অজুহাত নয়। আপিল শুরু করার জন্য প্রয়োজনীয় নথি সংগ্রহ না করতে পারলে অসুস্থতা বা অক্ষমতা কোনো অজুহাত নয়। অবশেষে,একজন আবেদনকারী এবং একটি স্কুল জেলার মধ্যে আলোচনা বা বিতর্ক মীমাংসা করার প্রচেষ্টার কারণে আপিল করার সময় বর্ধিত  হয় না। একজন আবেদনকারী ৩০ দিনের সময় অতিক্রম করার  আপীল আনার প্রচেষ্টা করলে দরখাস্ত এর মধ্যে তার ব্যর্থতার জন্য কারণ উল্লেখ আবশ্যক।

৮. আমি কিভাবে আপিলে জয়ী হতে পারি এবংআমার কমিশনার থেকে আমার অনুরোধ করা রিলিফ পেতে পারি?

আবেদনকারী হিসেবে একটা মামলা প্রমাণ এর  দায়িত্ব আপনার উপর ন্যস্ত। আপনাকে তথ্যচিত্র প্রমাণ মাধ্যমে সবকিছু প্রদর্শন করা আবশ্যক, মকদ্দমার যাচাইকৃত কাগজপত্র (সঠিক ও নির্ভুল হিসেবে উপস্থাপন হয়েছে মর্মে শপথ) এবং হলফনামা দাখিল করা আবশ্যক যা প্রমাণ করে যে আপনি সরাসরি জেলার সিদ্ধান্ত দ্বারা ক্ষতিগ্রস্ত হয়েছেন। আপনাকে দেখাতে হবে যে প্রতিপক্ষ (সাধারণতস্কুল ডিস্ট্রিক্ট) হয় (১) একটি ধারা বা প্রবিধান লঙ্ঘন করেছেন; অথবা (২) ইচ্ছামত এবং খেয়ালখুশিমত কার্য সম্পাদন করেছেন।

৯. আমি কিভাবে প্রদর্শন করব যে একটি জেলা যথেচ্ছভাবে এবং খেয়ালখুশিমত কাজ করেছে ?

নির্বিচারে বা খামখেয়ালী কর্ম প্রদর্শন করার জন্য, একজন আবেদনকারীকে অবশ্যয়ই প্রমাণ করতে হবে যে, জেলার কর্মে সর্বত একটি মূলদ বা যুক্তিসঙ্গত ভিত্তি ছাড়াই ছিল। একটি জেলা আরও ভালো বা ভিন্ন সিদ্ধান্ত গ্রহন করতে পারতো তা  দেখানো যথেষ্ট নয়, অথবা আপনি যে কর্ম বা সিদ্ধান্তের সাথে দ্বিমত পোষণ করছেন, আবেদনকারী হিসেবে তাতে চ্যালেঞ্জ করছেন । আপনাকে এর পরিবর্তে দেখাতে হবে যে, জেলার কাজের কোন মূলদ, যুক্তিসঙ্গত সমর্থন বা ব্যাখ্যা নেই।

১০.কমিশনার কি একটি জেলার সিদ্ধান্ত / কর্ম এর বিপরীতে যাবেন যদি  প্রমাণিত হয় যে জেলা ভিন্নভাবে কাজ করতে পারত?

না। প্রশাসক স্থানীয় কর্মকর্তাদের সিদ্ধান্তগুলির প্রতি অত্যন্ত সম্মান প্রদর্শন করেন। এমনকি প্রশাসক যদি নিজে বিষয়টি ভিন্নভাবে সিদ্ধান্ত নিতেন, তারপরও তিনি তার নিজের জেলার রায় প্রতিস্থাপন করবেন না, অবশ্য সম্পূর্ণ রেকর্ড পর্যালোচনার পরে, তিনি যদি জেলার কর্মের জন্য কোনো মূলদ, যুক্তিবাদী ভিত্তিনা পান তাহলে ভিন্ন কথা।

১১. যদি প্রতিপক্ষ একটি যাচাইকৃত উত্তর জমা না করে, তাহলে কি আমার আপিল স্বয়ংক্রিয়ভাবে মঞ্জুর হবে?

না। একজন প্রতিপক্ষ উত্তর দিতে ব্যর্থ হলে, দরখাস্ত এর মধ্যের বিবৃতি সত্য বলিয়া গণ্য হয়। বিবৃতি এবং প্রমাণ এর মাধ্যমে, তারপরেও,প্রমাণ করতে হবে যে আবেদনকারী আইনত অনুরোধকৃত রিলিফ পাওয়ার জন্য যোগ্য।

১২. কমিশনার একটি সিদ্ধান্ত নেয়ার জন্য কী বিবেচনা করবেন?

কমিশনার তাঁর সামনে রেকর্ডের অংশ হিসাবে সঠিকভাবে পেশ করা হয়েছে শুধুমাত্র সেসকল নথি বিবেচনা করবেন (যেমন, যাচাইকৃত মকদ্দমার কাগজ, হলফনামা, বা রাজ্য শিক্ষা বিভাগের রিপোর্ট বা রেকর্ড)। কমিশনার রেকর্ড এর বাইরের ঘটনা বিবেচনা করবেন না (যেমন, ডিপার্টমেন্ট এ টেলিফোন কল দ্বারা সরবরাহিত তথ্য, সংবাদপত্রের নিবন্ধে, বা মৌখিক বিবৃতির কপি যা হলফনামা দ্বারা রেকর্ডের অংশ হিসেবে তৈরি নয়)।

১৩. কমিশনার কিভাবে আমার দরখাস্ত বিষয়ে সিদ্ধান্ত নেবেন তা জানার কোনো উপায় আছে কি?

কমিশনারের সিদ্ধান্ত আইনের উপর ভিত্তি করে করা হয়। আইনের বিধিবদ্ধ এবং নিয়মকানুন এর মধ্যে তা সেট করে ঘোষণা করা হয়, এবং আইনের ব্যাখ্যা পূর্ববর্তী কমিশনারের সিদ্ধান্তগুলিতে প্রতিফলিত হয়। আবেদনকারীদের এই সিদ্ধান্তগুলি পর্যালোচনা করার পরামর্শ দেওয়া হয়, কমিশনার অনুরূপ ঘটনার উপর ভিত্তি করে একটি অনুরূপ ক্ষেত্রে কিভাবে সিদ্ধান্ত দিতে পারেন তার একটি নির্দেশিকা পাওয়ার জন্য। উদাহরণস্বরূপ,  কমিশনারের সিদ্ধান্ত খুব কম ক্ষেত্রেই জেলার সিদ্ধান্তের বিপরীতে যায়- যেমন, একটি বাস স্টপ বসানোর জায়গার বিষয়ে; উপস্থিতির অঞ্চল নির্ধারণে; একজন শিক্ষার্থীর গ্রেড হিসাব করতে; অথবা একটি পরিবহন অনুরোধ অস্বীকার করার ক্ষেত্রে। এছাড়াও উপরের  ৮ ও ৯ নম্বর প্রশ্নে দেখুন। এপ্রিল ১৯৫৮ থেকে জুন ২০১০ পর্যন্ত শিক্ষা কমিশনারের সিদ্ধান্ত আনুষ্ঠানিকভাবে রিপোর্ট করা হয় এবং শিক্ষা অধিদপ্তর প্রতিবেদন এর মধ্যে সূচীবদ্ধ, খন্ড ১-৪৯, আপনার স্থানীয় লাইব্রেরীতে পাওয়া যেতে পারে। জুলাই ১৯৯১ থেকে অসম্পাদিত এবং অসূচীবদ্ধ সিদ্ধান্ত এই ওয়েবসাইটে পাওয়া যায় Decisions of the Commissioner of Education.

১৪. কমিশনার সিদ্ধান্ত নিবেন না এমন কি কিছু অভিযোগ আছে?

হ্যাঁ, কমিশনার কিছু নির্দিষ্ট বিরোধ বিষয়ে সিদ্ধান্ত নিবেন না।  উদাহরণস্বরূপ, কমিশনার এর কোনো কর্তৃপক্ষ নেই কথিত উম্মুক্ত সভা আইন বা তথ্য স্বাধীনতা লঙ্ঘন বিষয়ে সিদ্ধান্ত নেয়ার জন্যে। সুতরাং, কমিশনার এ বিষয়ে দাবি সিদ্ধান্ত নিতে পারে না যে একটি স্কুল ডিস্ট্রিক্ট একটি উম্মুক্ত বৈঠক করতে ব্যর্থ হয়েছে বা নথির জন্য একটি অনুরোধ অন্যায়ভাবে প্রত্যাখ্যান করেছে। এই ধরনের দাবী এর পরিবর্তে একটি আদালতে হাজির করা হবে। উপরন্তু, কমিশনারের আর্থিক ক্ষতি পুরণ দেয়ার কোনো ক্ষমতা নেই।

১৫. আমি একটি দরখাস্ত দায়ের করার পরে, কখন আমি একটা সিদ্ধান্ত আশা করতে পারি?

একটি দরখাস্ত মামলার সব কাগজপত্র (উত্তর, প্রত্যুত্তর ও সংক্ষিপ্তসার)  দাখিল না হওয়া পর্যন্ত  কমিশনারের আইনি কর্মীদের দ্বারা সেটি পর্যালোচনার জন্য প্রস্তুত হয় না।  শিক্ষা আইনের নিয়মকানুন এই সব নথি পেশ করার সময়সীমা নির্ধারণ করে।এই সময়সীমার কারণে, প্রাথমিক দরখাস্ত দায়ের করার পরে একটি ফাইল আসলে প্রায় আট সপ্তাহ এর পূর্বে সম্পূর্ণ হয় না। এই সময়সীমা এমনকি আরও দীর্ঘ সময়ের হতে পারে, যখন পক্ষগুলোর অনুরোধে পরিষেবার জন্য কমিশনারের কর্মীদের কাছ থেকে অতিরিক্ত সময় প্রাপ্ত হয়। ফাইল সম্পন্ন হলে, আমরা ছয় থেকে আট মাসের মধ্যে একটি সিদ্ধান্ত জারি করার চেষ্টা করি (অর্থাৎ, দরখাস্ত দায়ের করার পরে আট থেকে দশ মাস)। যাই হোক,প্রতি বছর শত শত জটিল আপিল দায়ের করা হয়, তাই একটি নির্দিষ্ট তারিখের গ্যারান্টি দেয়া অসম্ভব।

১৬. আমি কি ডিপার্টমেন্টে টেলিফোন করে বা লিখে আমার আপিল এর অবস্থা বা সিদ্ধান্ত জানতে পারি ?

কোর্টের মত বিচারক এর কাছে কোন মামলা পেন্ডিং থাকলে, ডিপার্টমেন্ট এবং কমিশনার দরখাস্ত দায়ের করার পর সিদ্ধান্ত গ্রহণের প্রক্রিয়া অথবা সিদ্ধান্তের অবস্থা সম্পর্কে তথ্য প্রদান করবেন না। যাই হোক, আমরা যতটা সম্ভব দ্রুততার সাথে প্রতিটি আপিল বিষয়ে সিদ্ধান্ত নেয়ার যথাসাধ্য চেষ্টা করি। ধৈর্য ধরুন এবং বুঝতে চেষ্টা করুন যে, সিদ্ধান্ত গ্রহনের জন্য তথ্য যাচাই একটি সময়সাপেক্ষ কাজ।

১৭. আমি কি আমার আপিল পেন্ডিং থাকা অবস্থায় অস্থায়ী রিলিফ এর অনুরোধ করতে পারি?

নিউ ইয়র্ক সিটি চার্টার স্কুল অবস্থান / সহ- অবস্থান এবং বিল্ডিং ব্যবহারের পরিকল্পনার সঙ্গে জড়িত আপিল ছাড়া (প্রশ্ন ৩ দেখুন), একজন আবেদনকারী একটি স্টে অর্ডার এর অনুরোধ করতে পারে। কমিশনারের প্রবিধানের ২৭৬ অংশ পড়ুন। প্রশাসক, তার বিবেচনার ভিত্তিতে, একটি স্টে আদেশ জারি করা উচিত কি না তা নির্ধারণ করে থাকেন।

১৮. আমি একটি স্টে অর্ডার (স্থগিতাদেশ) এর অনুরোধ করলে, কখন আমার অনুরোধের একটি সিদ্ধান্তের গ্রহণ করা হবে?

একজন প্রতিপক্ষ একটি স্থগিতাদেশ অনুরোধের বিরোধিতা করলে, প্রতিপক্ষ দরখাস্ত পরিবেশনার পর তিন কর্মদিবসের মধ্যে অনুরোধ বিরোধিতায আবশ্যকভাবে পরিবেশন করবেন এবং  হলফনামা দাখিল করবেন। কমিশনার সাধারণত প্রতিপক্ষ এর বিরোধী কাগজপত্র প্রাপ্তির কয়েক দিনের মধ্যে স্থগিতাদেশ অনুরোধের একটি সিদ্ধান্তের আদেশ দেন। স্টে অর্ডার শুধুমাত্র অস্বাভাবিক পরিস্থিতিতে মঞ্জুর করা হয়।

১৯. বিবাদী আমার স্থগিত থাকার অনুরোধের বিরোধিতা যদি না করে, তাহলে কি আমার অনুরোধ স্বয়ংক্রিয়ভাবে মঞ্জুর হয়ে যাবে?

না। আবেদনকারীর যুক্তিতর্কে সফল হওয়ার সম্ভাবনা আছে কিনা এবং আবেদনকারী একটি স্থগিত থাকার অভাবে অপূরণীয়ভাবে ক্ষতিগ্রস্ত হবে কিনা তা যাচাই করতে কমিশনার দরখাস্ত পর্যালোচনা করবেন।

২০. কখন প্রশাসক অফিস থেকে শিক্ষা বোর্ডের একজন সদস্যকে অপসারণ করবেন?

প্রশাসকের হস্তে  একজন ট্রাস্টি, শিক্ষা বোর্ডের সদস্য ও অন্য কিছু নির্দিষ্ট স্কুল অফিসার অপসারণ করার ক্ষমতা আছে তাদের  ইচ্ছাকৃত অসদাচরণ বা কর্তব্যে অবহেলার জন্য। তবে, কমিশনার ততক্ষণ জেলা অফিসারকে অপসারণ করতে পারবেন না যদি না এটা স্পষ্টভাবে প্রতিষ্ঠিত হয় যে কর্মকর্তা ইচ্ছাকৃতভাবে কাজ করেছেন  এবং একটি অন্যায় উদ্দেশ্য নিয়ে (১) আইন লঙ্ঘন, (২) তার দায়িত্ব অবহেলা, অথবা (৩) কমিশনারের একটি সিদ্ধান্ত, আদেশ বা প্রবিধান অমান্য করেছেন। কমিশনার কোনো স্কুল অফিসারকে অপসারণ করবেন না  যদি সেই ব্যক্তি নিছক দুর্বল জ্ঞান ব্যবহৃত করে থাকে।

২১. আমি কি অপসারণের জন্য আপিলল করার আবেদনই ব্যবহার করব ?

সাধারণত, ফর্ম একই থাকে. তবে, একটি স্কুল কর্মকর্তার অপসারণের জন্য নোটিশ ভিন্ন। উপরন্তু, আবেদনে পরিষ্কারভাবে অফিসার ইচ্ছাকৃত ভাবে লঙ্ঘন করেছে এমন অভিযোগ উল্লেখ করা আবশ্যক এবং একটি ইচ্ছাকৃত লঙ্ঘনের প্রয়োজনীয় তথ্যাদি দেখাতে হবে। প্রশাসকের প্রবিধানের ২৭৭ অংশ পড়ুন।